• ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখায় আবারও হিন্দু সম্প্রদায়ের জায়গা দখল

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ডিসেম্বর ১৭, ২০১৪
মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখায় আবারও হিন্দু সম্প্রদায়ের জায়গা দখল

বড়লেখা সংবাদদাতা :
গতকাল বড়লেখা থানার, পানিধার গ্রামের বিধান চন্দের ২০ শতাংশ জায়গা দখল করে স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান সুহেব আহমেদ এর চাচাতো ভাই জাকির হোসেন ও তার সহযোগি টনি আহমেদ।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায় ভূমির স্বাধিকারী বিধান চন্দের সাথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সুযোগ নিয়ে এই জায়গা দখল করে নেয়।  বিধান চন্দ আপত্তি দিতে গেলে তাকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে থাকে দখল কারী ব্যক্তিগন। দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে এক পর্যায়ে জ্ঞান হারালে স্থানীয় জনতা বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ঘটনার সূত্রপাতঃ ২০১৩ সালে যুদ্ধ অপরাধীদের বিচারের দাবীতে রায়কে কেন্দ্র করে সারা বাংলাদেশের মতো বড়লেখা থানার জামাতে ইসলামীর সমর্থন কারীরা বড়লেখা বাজারের দোকান পাট ভাঙ্গা সহ আগুন ধরিয়ে দেয় এতে প্রায় একশো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এতে বিধান চন্দের দুটি ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্থ হলে অন্যান্যদের মতো তিনিও জাকির হোসেন গংদের নামে ক্ষতি পূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেন।

উক্ত হামলার নেতৃত্বে ছিলেন জাকির হোসেন ও টনি আহমেদ।

তৎকালীন সময়ে জাকির হোসেনের চাচা খিজির আহমেদ জামাতে ইসলাম বাংলাদেশ বড়লেখা থানার নায়েবে আমির ছিলেন এবং জাকির হোসেন জামাতের একজন সক্রিয় কর্মী। বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় খিজির আহমেদ প্রকাশ্যে হিন্দু সম্প্রদায়ের জায়গা জমি দখল করেন এতে প্রান ভয়ে স্থানীয় অনেক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোক দেশ ছাড়তে বাধ্য হন।
সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিধান চন্দের ছেলে বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে জানাযায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন