• ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সীরাতুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সিলেটের আলোচনা সভা

Daily Jugabheri
প্রকাশিত নভেম্বর ১২, ২০২০
সীরাতুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সিলেটের আলোচনা সভা

বিশ্বনবী (সাঃ) এর জীবন অনুসরণের মাধ্যমেই
মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা সম্ভব
—–এডভোকেট এটিএম ফয়েজ
সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এটিএম ফয়েজ উদ্দিন বলেছেন, মানবতার মুক্তি দূত মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) হলেন মুসলিম উম্মাহর জীবন পরিচালনার সর্বোত্তম আদর্শ। নবী (সাঃ) এর শিক্ষা বাস্থব জীবনে প্রয়োগের মাধ্যমে মানবাধিকার আইনের শাসন ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠা সম্ভব। মহানবী (সাঃ) জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের সকল স্তরে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে আইনজীবীদের অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে। ইতিহাস স্বাক্ষী পৃথিবীর সবচেয়ে গৌরবোজ্জল শাসনকাল ছিল বিশ্বনবী (সাঃ) এর শাসনকাল। মহানবী (সাঃ) আমাদের দেখিয়ে গিয়েছেন বড়দের সম্মান করা, ছোটদের স্নেহ করা, মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে মিলেমিশে বসবাস করা এবং অসহায়ের পাশে দাড়ানো। তাই আমাদেরকে পরকালিন মুক্তি ও ইহকালিন সফলতার জন্য মহানবী (সাঃ) এর জীবন অনুসরণ করতে হবে।

তিনি বৃহস্পতিবার সীরাতুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সিলেট আয়োজিত “মানবাধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ)” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সিলেটের সভাপতি এডভোকেট আলিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।
আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী সিলেট মহানগরীর আমীর মো: ফখরুল ইসলাম। সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা পেশ করেন, হযরত শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া (পাঠানটুলা) মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা লুৎফুর রহমান হুমায়দী। সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ফজলুল হক সেলিম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ল’ইয়ার্স কাউন্সিল সিলেটের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আব্দুর রব।
কাউন্সিলের যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট জামিল আহমদ রাজু ও সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল খালিকের যৌথ পরিচালনায় সিলেট জেলা বারের ২নং হলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কাউন্সিলের সদস্য এডভোকেট আব্দুল গাফফার।
আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা বারের বিশিষ্ট আইনজীবী এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, এডভোকেট মর্তুজা আহমদ, এডভোকেট তৌহিদুল ইসলাম সোহাগ, এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন শামীম, এডভোকেট শফিকুল ইসলাম, এডভোকেট রবিউল ইসলাম, এডভোকেট ইয়াসীন খান, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হোসেন আহমদ, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট জোহরা জেসমিন, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট মহসিন আহমদ দুলাল, সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক এডভোকেট এজাজ উদ্দিন, এডভোকেট শিব্বির আহমদ বাবলু, সহ-সম্পাদক এডভোকেট মিজানুর রহমান ও এডভোকেট রেদওয়ানুর রহমান, সাবেক সহ-সম্পাদক এডভোকেট খালেদ জুবায়ের, এডভোকেট মমিনুর রহমান টিটু, এডভোকেট খন্দকার রানা, সাবেক এপিপি এডভোকেট কামরুল ইসলাম, এডভোকেট আজিজ উদ্দিন, এডভোকেট মশহুদ আহমদ মহসিন, এডভোকেট আবুল কালাম, এডভোকেট মকসুদ আহমদ, এডভোকেট জুনেদ আহমদ, এডভোকেট কয়েস আলী, এডভোকেট ইমরান আহমদ, এডভোকেট কবির আহমদ, এডভোকেট কাওসার আহমদ, এডভোকেট জাকির হোসেন, এডভোকেট ময়নুল ইসলাম, এডভোকেট মোবারক হোসেন ও এডভোকেট মোহাম্মদ আলী প্রমূখ।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেন, বর্তমান বিশে^ মুসলিম উম্মাহ সবচেয়ে বেশী নির্যাতিত, নিপীড়িত এবং লাঞ্চিত। এর একমাত্র কারণ মহানবী (সাঃ) এর আদর্শ থেকে আমরা ক্রমশই দুরে সরে যাচ্ছি। আমাদেরকে ভুলে গেলে চলবেনা আমাদের জন্য সর্বোত্তম আদর্শ হচ্ছেন বিশ^নবী (সাঃ)। তৎকালিন আরবের অন্ধকারাচ্ছন্ন যুগকে মহানবী (সাঃ) সর্বশ্রেষ্ট যুগে পরিনত করেছিলেন। মহাগ্রন্থ আল কুরআন ও নবীজী (সাঃ) এর সুন্নাহ থেকে সরে আসার কারণেই আজ সর্বত্র অশান্তি। মানবাধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় বিশ^নবী (সাঃ) যে মহৎ উদ্যোগ গ্রহণ করেছিলেন এর শিক্ষা যদি আজো বাস্থবায়ন হয় তাহলে সমাজের চিত্র পাল্টে যাবে। বিশেষ করে আইনপেশায় নিয়োজিতদেরকে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় মহানবী (সাঃ) এর জীবনী অনুসরন করতে হবে। তাহলে পরকালিন মুক্তি ও ইহকালিন সাফল্য নিশ্চিত হবে।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে অধ্যক্ষ মাওলানা লুৎফুর রহমান হুমায়দী বলেন, বিশ^ব্যাপী দিকভ্রান্ত, দিশেহারা, অসহায় ও নির্যাতিত-নিপীড়িত মানবজাতির মুক্তিকল্পে আল্লাহ পাক রাব্বুল আল-আমীন তাঁর সর্বশেষ ও সবর্শ্রেষ্ঠ রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে সত্যদ্বীন ইসলাম সহ দুনিয়াতে প্রেরণ করেন। রাসুল (সাঃ) মানবাধিকারের পূর্ণাঙ্গ ও চিরন্তন রুপরেখা মানবজাতির সামনে শুধু পেশ করেননি। ইসলামী রাষ্ট্রব্যবস্থায় এর যথাযথ সফল বাস্থবায়ন করে গেছেন। মহানবী (সাঃ) এর জীবনাদর্শ থেকে আমাদেরকে জীবন পরিচালনার প্রকৃত শিক্ষা নিয়ে বাস্থব জীবনে এর প্রয়োগ ঘটাতে হবে। তাহলে রাসুল (সাঃ) এর প্রতি আমাদের ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটবে।
সভাপতির বক্তব্যে এডভোকেট আলিম উদ্দিন বলেন, মানবতার মুক্তিদূত মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর জীবন অনুসরনের মাঝেই মুসলিম উম্মাহর সকল কল্যান নিহিত। শুধু দিন বিশেষ আলোচনার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে গোটা জীবন পরিচালনায় মহানবী (সাঃ) এর জীবন চরিত্রকে মেনে চলার শপথ নিতে হবে। তাহলে আমাদের এই আয়োজন সার্থক হবে। প্রেস-বিজ্ঞপ্তি।

সংবাদটি শেয়ার করুন