• ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়ক সংস্কার কাজ : চরম দুর্ভোগ

Daily Jugabheri
প্রকাশিত নভেম্বর ২৮, ২০২০
বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়ক সংস্কার কাজ : চরম দুর্ভোগ

কাজ করতে গেলে জনগনের ক্ষতি হবেই : মন্তব্যে ঠিকাদার

আশিক আলী, বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি:
সিলেটের বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর প্রধান সড়ক সংস্কার কাজে দীর্ঘ এগারোটি মাস ধরে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছেন এই জনপদের জনসাধারণ। অতিরিক্ত গাড়িভাড়া, সময় ব্যয় আর ধুলুবালির যন্ত্রনায় জনসাধারণ অতিষ্ঠতো হতেই হচ্ছেন প্রতিনিয়ত। প্রায় মাস খানেক পূর্বে বিশ্বনাথ থেকে জগন্নাথপুর সীমানা পর্যন্ত ১৩ কিলোমিটার সংস্কার কাজের অংশ হিসেবে চান্দশির কাপনের খান ‘স’মিলের সামন থেকে মস্তুরা পর্যন্ত মাত্র ৫০০মিটার আরসিসি কাজ শুরু করেছে ঠিকাদরি প্রতিষ্ঠান। তাও মাস খানেক ধরে সম্পূর্নরুপে যাতায়াত বন্ধ করে। বিকল্প হিসেবে আঞ্চলিক একটি সড়ক মস্তুরা-আনিকা কমিউনিটি সেন্টার সড়ক ব্যবহার করা হচ্ছে। শুক্রবার বিকেলে মস্তুরা থেকে (অর্তাৎ ওই ৫০০মিটারের পর হতে) আবারও সড়ক বন্ধ করে উপজেলা সদর পর্যন্ত নতুন করে আরসিসি কাজ শুরু করা হয়েছে। বিকল্প হিসেবে বাইপাস হয়ে অতিরিক্ত প্রায় চার কিলোমিটার ঘুরে যাত্রী নিয়ে উপজেলা সদরে যেতে হচ্ছে যানবাহন। তাই শুক্রবার থেকে যাত্রীরা কালিগঞ্জ থেকে বিশ্বনাথ পর্যন্ত সময় বেশী লাগার পাশাপাশি আরও ১০ টাকা বেশী ভাড়া গুণতে হচ্ছেন।
সম্পূর্ণরুপে জনবহুল ও প্রধান একটি রাস্তা বন্ধ করে সংস্কার কাজ করার অভিযোগ জেনে বিষয়টি জানতে সাব-ঠিকাদার সুহেল আহমদের কাছে যান বিশ্বনাথের তিনজন সাংবাদিক। তারা হলেন তজম্মুল আলী রাজু, আশিক আলী ও আক্তার আহমদ শাহেদ। এসময় সাব-ঠিকাদার সুহেল আহমদ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বাজে মন্তব্য করে বলেন- কাজ করতে গেলে জনগণের দুর্ভোগ আর একটু ক্ষতি হবেই। সেটা মেনে না নিলে কাজ বন্ধ করারও হুমকি দেন তিনি। তিনি বলেন সাংবাদিকরাই শুধু কথা বলেন। এখানে ইউএনও, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা প্রকৌশলী অথবা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি কোন কথা বলেন না। তিনি ডিসি, ইউএনও, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা প্রকৌশলী, উপজেল আ’লীগের সভাপতি, বাস মালিক সমিতি আর সিএনজি মালিক সমিতির সাথে কথা বলে রাস্তা বন্ধ করেছেন। কিন্তু খান ‘স’মিল থেকে উপজেলা সদর পর্যন্ত এই এক কিলোমিটারের ভেতরে থাকা জনগসাধারণ দুর্ভোগ ও ব্যবসায়ীদের ক্ষয়ক্ষতি চরমে দাড়িয়েছে। রাস্তা অর্ধেক বন্ধ করে কাজ করার কথা বললে ঠিকাদার সুহেল আহমদ ক্ষিপ্ত হয়ে আরও বলেন- তাহলে আপনারা সাংবাদিকরা কাজ করে দেন। এভাবে অপরিকল্পিত সংস্কার কাজে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছেন জনসাধারণ। তবে সর্বশেষ তিনি বলে শুধু আজ রাতের জন্য রাস্তাটি বন্ধ করা হয়েছে। সকাল থেকে যানবাহন চলাচল করতে পারবে।
জানতে চাইলে উপজেলা প্রকৌশলীর মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন