• ২রা এপ্রিল, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১১ই রমজান, ১৪৪৪ হিজরি

গোলাপগঞ্জে অন্ত:স্বত্তা গৃহবধু খুন স্বামী শ্বাশুড়ীর বিরুদ্ধে মামলা

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১
গোলাপগঞ্জে অন্ত:স্বত্তা গৃহবধু খুন স্বামী শ্বাশুড়ীর বিরুদ্ধে মামলা

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি : গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলসাইন্দ গ্রামে খুন হয়েছেন এক অন্ত:স্বত্তা গৃহবধু। তার নাম সীতা রানী দাশ। এ ঘটনায় তার পিতা অলক দাশ গোলাপগঞ্জ থানায় গৃহবধুর স্বামী ও শ্বাশুড়ীকে অভিযুক্ত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গোলাপগঞ্জের ফুলসাইন্দ গ্রামের মৃত গৌছ উদ্দিনের পুত্র মোহাম্মদ রাশেদ আহমদ ও সীতা রানী দাশের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ভিন্ন ধর্মাবলম্বী হওয়ায় উভয় পরিবার তাদের সম্পর্ককে মেনে নেয়নি। তাই কোর্টের মাধ্যমে গত ১৩/০৭/২০২০ ইং তারিখে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং স্ত্রীকে নিয়ে অন্যত্র বসবাস করতে থাকেন মোহাম্মদ রাশেদ আহমদ। কিছুদিন পর সীতা রানী দাশ অন্ত:স্বত্তা হলে রাশেদ আহমদ তার মাকে ম্যানেজ করে স্ত্রীকে নিয়ে তার নিজ বাড়িতে আসেন। কিন্তু রাশেদের চাচা ও সৎ ভাইয়েরা এর বিরোধিতা করেন।
গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালে সীতা রানী দাশকে বাড়ির আঙিনায় পেয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন মোহাম্মদ রাশেদ আহমদের চাচা হারুন উদ্দিন। এসময় রাশেদের মা মিনারা খানম প্রতিবাদ করলে উভয় পক্ষে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। তখন রাশেদের সৎ ভাই দিলুয়ার রাশেদের মাকে তেড়ে আসলে সীতা রানী দাশ বাধা দেন। এতে উভয়পক্ষের ধস্তাধস্তিতে পেটে মারাত্মক আঘাত পেয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয় অন্ত:স্বত্তা সীতা রানী দাশের। কিছুক্ষন পর তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়না তদন্ত শেষে গতকাল রাতে স্থানীয় শ্মসানঘাটে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়।
স্থানীয়রা জানান, মোহাম্মদ রাশেদ আহমদের সাথে জায়গা জমি নিয়ে তার চাচা ও সৎভাইদের চরম বিরোধিতা এবং শত্রুতামির জের ধরে খুন হয়েছেন সীতা রানী দাশ। আর তাতে ফেসে গেছেন মোঃ রাশেদ আহমদ ও তার মাতা মিনারা খানম। কারণ অলক দাশ তার মেয়ে সীতা রানী দাশ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত করেছেন মোঃ রাশেদ আহমদ ও তার মাতা মিনারা খানমকে।
মামলার পর থেকে আত্মগোপন করেছেন মোঃ রাশেদ আহমদ ও তার মা মিনারা খানম। তাদেরকে আটক করতে সম্ভাব্য সব জায়গায় পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খায়রুল ফজল। যত দ্রুত সম্ভব তাদেরকে আটক করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন