• ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শিক্ষাবিদ নুর উদ্দিনের মৃত্যুতে মহানগর কানাইঘাট কল্যাণ সংস্থার শোক

Daily Jugabheri
প্রকাশিত অক্টোবর ২৩, ২০২১
শিক্ষাবিদ নুর উদ্দিনের মৃত্যুতে মহানগর কানাইঘাট কল্যাণ সংস্থার শোক

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রেজিস্ট্রার, সিলেট মহানগর কানাইঘাট কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক, বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সমাজসেবী রোটারিয়ান ডা. মো. মিছবাউল ইসলামের পিতা কানাইঘাট হাই স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষক এবং জুলাই হাই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক, ৬টি ভাষায় পারদর্শী অত্যন্ত বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও শিক্ষানুরাগী, পূর্ব কানাইঘাটের বিশিষ্টজন মুরব্বি, প্রবীণ শিক্ষক মৌলভী মো. নুরউদ্দীন আহমদ এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও রুহের মাগফিরাত কামনা করেছেন সিলেট মহানগর কানাইঘাট কল্যাণ সংস্থার নেতৃবৃন্দ।
শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোক বার্তায় নেতৃবৃন্দ বলেন, এই প্রবীণ শিক্ষাবিদ এর মৃত্যুতে সমাজের যে ক্ষতি হয়েছে তা সহজে পূরণ হবার নয়। মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন সংস্থার সভাপতি শিক্ষাবিদ মাষ্টার মো. জালাল উদ্দিন, সহ সভাপতি (যথাক্রমে) সেলিম আহমদ চৌধুরী, মো. জাকারিয়া (শাবিপ্রবির ইন্সট্রুমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার), মো. আমিনুর রশীদ, মো. আবুল কাশেম, সহ সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা জাদুল আহমদ চৌধুরী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলাউর রহমান, কোষাধ্যক্ষ মো. জসিম উদ্দিন, সহ কোষাধ্যক্ষ মৌলভী আবু সাইদ আল হুসাইন, অফিস সম্পাদক মো. আশিকুর রহমান, শিক্ষা-সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক আসিফ আযহার, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক লায়ন্স মো. হুমায়ুন কবির, প্রচার সম্পাদক মো. আব্দুস শাকুর, সহ প্রচার সম্পাদক মো. মাহফুজুর রহমান রাসেল, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মো. আরাফাত রানা, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. বজলুর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. তাজ উদ্দিন, ক্রীড়া সম্পাদক সালমান রহমান তারেক, সদস্য মো. আনোয়ার হোসাইন, মো. আবুল বাশার ও তোফায়েল হাসান প্রমুখ।
উল্লেখ্য, মৌলভী মো. নুরউদ্দিন আহমদ সাহেব গতকাল ২২ অক্টোবর শুক্রবার ভোর চারটায় ৮০ বছর বয়সে বার্ধক্যজনিত রোগে নিজ বাড়িতে ইহকালীন জীবন ত্যাগ করে মহান প্রভুর ডাকে সাড়া দিয়ে পরকালীন জীবনে পাড়ি জমান। ঐদিনই বাদ জুম’য়া কানাইঘাট ভাটি বারাপৈত ঈদগাহ ময়দানে জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
মৃত্যুকালে তিনি ২ স্ত্রী, ৪ ছেলে ৫ মেয়ে সহ অনেক আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
উল্লেখ্য, মরহুমের বড় ছেলে ডা. মো. মিছবাহুল ইসলাম ছাড়া অপর তিন ছেলে ফ্রান্স প্রবাসী।
এ গুণীজনের ইন্তেকালে এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও দেশ বিদেশের অসংখ্য গুণগ্রাহী ফেইসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ সহ অনলাইন মিডিয়ার মাধ্যমে শোক প্রকাশ করেছেন। এছাড়া অনুপ্রাণন ঐতিহ্য সন্ধানী কাগজ এর পক্ষ থেকেও শোক জানানো হয়। প্রেস-বিজ্ঞপ্তি

সংবাদটি শেয়ার করুন