• ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৮ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

তেতলি ইউপি নির্বাচন ঘোষণার দাবিতে যুবসমাজের স্মারকলিপি পেশ

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৭, ২০২১
তেতলি ইউপি নির্বাচন ঘোষণার দাবিতে যুবসমাজের স্মারকলিপি পেশ

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ৩নং তেতলি ইউপি নির্বাচনের সময়সূচি ঘোষণার দাবিতে প্রশাসনের বিভিন্নস্তরে স্মারকলিপি পেশ করা হয়েছে। (৭ ডিসেম্বর) মঙ্গলবার ইউনিয়নের যুবসমাজের পক্ষে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী, সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবরে পৃথকভাবে এ স্মারকলিপি পেশ করা হয়। সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভূক্ত অংশ বাদ দিয়ে তেতলি ইউনিয়নের আওতাভূক্ত এলাকা নিয়ে নতুনভাবে ওয়ার্ডের সীমানা পুনঃবিন্যস্ত করার দাবিতে শিগগির-ই স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সিলেট বিভাগের উপ-পরিচালক বরাবরে স্মারকলিপি পেশ করা হবে।
পেশকৃত স্মারকলিপিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত তেতলি ইউপি নির্বাচন না হওয়ায় জনসাধারণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে দীর্ঘসময় দায়িত্বে থাকার সুযোগে জনপ্রতিনিধিরা ইদানিং আর দায়বদ্ধতার তোয়াক্কা করছেন না। ক্রমশঃ তাঁরা দুর্নীতিপরায়ণতার দিকে ঝুঁকছেন। তাঁদের অন্যায় আবদার আর চাহিদা পুরণ করতে গিয়ে ইউনিয়নবাসি নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। নাগরিক ও জন্ম-মৃত্যু সনদ, ট্রেড লাইসেন্স ইত্যাদি জরুরী সেবার প্রয়োজনে ইউনিয়ন অফিসে গেলে জনপ্রতিনিধিরা সাধারণ মানুষের সাথে অশোভন আচরণ করেন। কিন্তু অতিরিক্ত ফি’ দিলে সেবা পাওয়া সহজতর হয়ে যায়। স্মারকলিপিতে বলা হয়, দীর্ঘদিন নির্বাচন না হওয়ায় জনপ্রতিনিধিদের চরম অনীহা, নির্লিপ্ততা, গাফিলতি এবং দায়িত্বহীনতার কারণে তেতলি ইউনিয়ন সরকারের সামগ্রিক উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অথচ বর্তমান সরকারের আমলে সারাদেশের মতো পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নসমুহেও প্রচুর উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। একই কারণে মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে সামাজিক শৃংখলা। নানা অভিযোগে আদালতে দোষী সাব্যস্থ হওয়ায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ইউপি চেয়ারম্যানকেও কয়েক বছর পূর্বে বরখাস্ত করেছে। বর্তমান দায়িত্বশীলদের অজ্ঞতার কারণে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ ‘গ্রাম আদালত’-এর কার্যক্রম প্রায় বন্ধ রয়েছে। এ সুযোগে সালিশ বৈঠকের নামে অর্থের ছড়াছড়িতে দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে ইউনিয়নবাসী। সর্বোপরী দীর্ঘদিন ইউপি নির্বাচন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্ব গড়ে উঠছে না। এরফলে ইউনিয়নে নতুন নেতৃত্ব প্রত্যাশী যুবসমাজের মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে।
স্মারকলিপিতে ২০০৩-০৮ মেয়াদকালে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ তেতলি ও মোল্লারগাঁও ইউনিয়নের অংশবিশেষ নিয়ে নতুন করে কামালবাজার ইউনিয়ন গঠন করে। সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জনপ্রতিনিধি নামধারী স্বার্থান্বেষীদের ক্রীড়ণক কতিপয় মোসাহেব আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি ক্রমশঃ জজ আদালত থেকে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগে খারিজ হয়। খারিজ আদেশের রিভিউও জনস্বার্থে বৈধ ও আইনানুগ বলে উচ্চ আদালত রায় প্রদান করেন।
এছাড়া গত ৩১ আগস্ট স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক প্রকাশিত সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সীমানা সম্প্রসারণ সংক্রান্ত গেজেট নোটিফিকেশনে তেতলি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বেশীরভাগ এলাকা সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভূক্ত দেখানো হয়েছে। এ জন্য ১নং ওয়ার্ড পূনঃর্বিন্যস্ত করা আশু প্রয়োজন। এ বিষয়েও বিহীত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্মারকলিপিতে দাবি জানানো হয়।
তেতলি ইউনিয়ন যুব সমাজের পক্ষে বিভিন্ন গ্রামের ২৯২জন যুবক-যুব মহিলার স্বাক্ষরযুক্ত স্মারকলিপি পেশকালে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ রিপন, মুস্তাক আহমদ, বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

সংবাদটি শেয়ার করুন