• ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৮ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ : ৭ বারের চেয়ারম্যান বাবার চেয়ারে বসলেন ছেলে

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২
ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ : ৭ বারের চেয়ারম্যান বাবার চেয়ারে বসলেন ছেলে

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
৭ বার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনের পর এবার অবসর নিলেন সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার। তবে তার দীর্ঘদিনের কাজ করা ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব হস্তান্তর করে গেছেন তারই ছেলে কাজল চন্দ্র তালুকদারের হাতে।
বয়সের ভারে গত ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেননি করুনা সিন্ধু তালুকদার (৯৬)। ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন তাঁর দ্বিতীয় ছেলে কাজল চন্দ্র তালুকদার।
গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে শপথ গ্রহণ করেন ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার। এরপর গতকাল বুধবার জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ^জিৎ দেব’র উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান। আবেগঘন পরিবেশে ৬ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান পিতা করুনা সিন্ধু তালুকদারের কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন তারই ছেলে কাজল চন্দ্র তালুকদার।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জামালগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের ও দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ সহকারি প্রকৌশলী রাম কুমার সাহা, পরিষদের সচিব অজিত কুমার রায়সহ সকল ইউপি সদস্য ও সদস্যাগণ।
নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার বলেন,‘ আমার বাবা ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের ৭ বারের চেয়ারম্যান ছিলেন। আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করব ইউনিয়নবাসীর পাশে থেকে তাদের সেবা করার।’
জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ^জিৎ দেব বলেন,‘ করুনা সিন্ধু তালুকদার দীর্ঘদিন ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান তারই ছেলে কাজল চন্দ্র তালুকদারের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেছেন তিনি।’
প্রসঙ্গত, ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের সদ্য বিদায়ী ৭ বারের চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার ছয়হারা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের এক বার রিলিফ চেয়ারম্যান ও ৬ বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে তিনি অংশগ্রহণ করেন নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন