• ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৯ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

নগরীর শাহী ঈদগাহে ‘মধুফুল’ দোকানে হামলা ও ভাংচুর, আহত ১

Daily Jugabheri
প্রকাশিত মে ৭, ২০২২
নগরীর শাহী ঈদগাহে ‘মধুফুল’ দোকানে হামলা ও ভাংচুর, আহত ১

স্টাফ রিপোর্টার : নগরীর শাহী ঈদগাহ এলাকায় মিষ্টি এবং ফাস্টফুডের দোকান মধুফুলে ভাংচুর ও হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা। হামলায় ১ জন গুরুতর আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহতের নাম শাহীন আহমদ (১৭)। রাজনৈতিক শত্রুতার জের ধরে আজ বিকেলে এ হামলা চালানো হয় বলে জানা গেছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, আজ বিকেলে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা শাহী ঈদগাহ এলাকার মধুফুল দোকানে গিয়ে শিবির নেতা মো: আনিসুর রহমানকে খুঁজতে থাকে। মোঃ আনিসুরের ছোট ভাই শাহীন আহমদ তাদেরকে জানান, তার ভাই যুক্তরাজ্যে থাকেন। এতে ছাত্রলীগ ক্যাডারার ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে। হামলায় গুরুতর আহত হন শাহীন আহমদ। এসময় ছাত্রলীগ ক্যাডাররা দোকানে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহত শাহীন আহমদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। তার মাথায় গুরুতর আঘাত রয়েছে এবং আঙ্গুল ভেঙ্গে গেছে বলে জানা গেছে। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত রয়েছেন।

এ ব্যাপারে শাহীন আহমদের পিতা মোঃ আজিজুর রহমান জানান, তার বড় ছেলে মোঃ আনিসুর রহমান স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়ে পড়াশোনা করছেন। দেশে থাকতে তিনি ইসলামী ছাত্রশিবির করতেন। এটাই এখন তার জন্য বড় সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে। তিনি জানান, মোঃ আনিসুর রহমান যুক্তরাজ্যে যাওয়ার কিছুদিন পর থেকেই ছাত্রলীগ ক্যাডাররা আনিসুরকে খঁুঁজতে থাকে। নগরীর বালুচরে বাসায় গিয়েও ছাত্রলীগ ক্যডাররা বারবার হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে।

মোঃ আনিসুর রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে তাদের হাতে তুলে না দিলে পরিবারের সবাইকে মেরে ফেলার ধামকি দিয়ে আসছে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা। ঘটনাটি তিনি থানা পুলিশকে অবহিত করলেও কোন সহযোগিতা করছেনা তারা। তাই ছাত্রলীগ ক্যডারার বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ছাত্রলীগ ক্যাডাররা আমার দোকানে ভাংচুর ও ছোট ছেলে শাহীন আহমদকে মারধর করেছে। মোঃ আনিসুর রহমান ইংল্যান্ডে রয়েছে কিন্তু ছোট ছেলে শাহীন আহমদের জীবন নিয়ে তিনি এখন শংকায় দিন কাটাচ্ছেন। তার দুই পুত্রের জীবনের নিরাপত্তা নেই। তিনি আরও জানান-এ ঘটনায় আজ রাতে তিনি অভিযোগ করতে থানায় গেলে তার অভিযোগ গ্রহণ করেনি পুলিশ।

তবে এ ব্যাপারে এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ঈদগাহ এলাকায় ‘মধুফল’ নামক দোকানে ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাথে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ হয়েছে বলে তিনি খবর পেয়েছেন। তবে এ বিষয়ে কোন অভিযোগ পাননি তিনি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অভিযোগ পেলে দোষীদের সনাক্ত করতে পুলিশ জোরালো পদক্ষেপ নেবে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন