• ১৭ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সুনামগঞ্জে বন্ধুকে হত্যার অপরাধে দুই বন্ধুর যাবজ্জীবন

Daily Jugabheri
প্রকাশিত মার্চ ১৯, ২০২৩
সুনামগঞ্জে বন্ধুকে হত্যার অপরাধে দুই বন্ধুর যাবজ্জীবন

 যুগভেরী ডেস্ক ::: সুনামগঞ্জে দিরাই উপজেলার কেজাউরা গ্রামে টাকার জন্য ব্যবসায়ীক পার্টনারকে হত্যা মামলায় দুই বন্ধুকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারদন্ডের রায় দেওয়া হয়েছে।

যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, দিরাই উপজেলার বেগমপুর গ্রামের ইয়াছিন আলীর ছেলে কামরুল ইসলাম (৪০) ও কেজাউরা গ্রামের আহমদ আলীর ছেলে এলাইছ মিয়া (৪৫)। তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় কেজাউরা গ্রামের মহিউদ্দিনের ছেলে বাছির আলী (৫০) কে মামলা থেকে খালাস দেওয়া হয়।

রবিবার দুপুরে সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক মহিউদ্দিন মুরাদ এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামী আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দিরাই উপজেলার কেজাউরা গ্রামের বাসিন্দা মুজিবুর রহমান মুজিব, একই এলাকার বেগমপুর গ্রামের কামরুল ও কেজাউরা গ্রামের এলাইছ ব্যবসায়ীক বন্ধু ছিলেন। মুজিবের কাছে বিল ব্যবসার ৫৫ হাজার টাকা পাওনা ছিল আসামী কামরুল ও এলাইছের। মুজিব পর্যায়ক্রমে ৪০ হাজার টাকা পরিশোধ করলেও ১৫ হাজার টাকা পাওনা থেকে যায়। এর এক পর্যায়ে ২০০২ সালের ২২ জুন বিকালে পূর্বের কিল ব্যবসার বিরোধ নিষ্পত্তি করে দেবার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় কামরুল ও এলাইছ। পর দিন ২৩ জুন একই এলাকার রাস্তার পাশে মুজিবের ক্ষত-বিক্ষত লাশ পাওয়া যায়। এইদিন কামরুল, এলাইছ, বাছিরসহ তিনজনের বিরুদ্ধে দিরাই থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত মুজিবের বাবা আব্দুর রউফ। তদন্ত ও দীর্ঘ শুনানি শেষে ২০ বছর পর গতকাল রবিবার এই মামলার রায় দেন আদালত।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. সোহেল আহমদ ছইল মিয়া বলেন, ‘কেজাউরা গ্রামের মুজিব হত্যা মামলায় আদালত দুই আসামী কামরুল ইসলাম ও এলাইছ মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বাছির মিয়াকে খালাস দেওয়া হয়েছে। আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।’

সংবাদটি শেয়ার করুন