• ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সিলেটে ‘ভুল চিকিৎসায়’ শাবিপ্রবি কর্মকর্তার মৃত্যুর অভিযোগ

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৪
সিলেটে ‘ভুল চিকিৎসায়’ শাবিপ্রবি কর্মকর্তার মৃত্যুর অভিযোগ

যুগভেরী ডেস্ক ::: সিলেটের বেসরকারি মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের ভুল চিকিৎসায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) নিরাপত্তা শাখার প্রশাসনিক কর্মকর্তা সাহেদ আহমদের (৪০) মৃত্যুর অভিযোগ ওঠেছে।  মঙ্গলবার (১৩ ফ্রেব্রুয়ারি) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় ল্যাব এইড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন সাহেদ আহমদ। এরআগে তিনি সিলেটের মাউন্ট এডোরায় চিকিৎসা নিয়েছিলেন।  খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ডিসেম্বরে সিলেটের আখালিয়াস্থ মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যান সাহেদ আহমদ। সেখানের কর্তব্যরত চিকিৎসক নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ কামাল কর্তৃক সাহেদের নাকে এন্ডোসকপিক সাইনাস অপারেশন করানো হয়। এর আগে একই দিন সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. খালেদ মাহমুদ সাহেদকে সিস্টের অপারেশন করেন। অপারেশনের পরেরদিন পেটের তীব্র ব্যাথা অনুভব করলে তাকে আলট্রাসনো ও স্লিপেস টেস্ট করানো হয়। পরে হাসপাতালের এমডি অধ্যাপক ডা. আক্তারুজ্জামান সাহেদের প্যানক্রিয়াটাইস লিক হয়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেন।  তবে একই সময় সাইনাস ও সিস্টের অপারেশনের ফলে সাহেদের একটি চোখ নষ্ট হয়ে যায়, প্যানক্রিয়াস লিক হয়ে যায় এবং অগ্নাশয়ের জটিল সমস্যায় পড়েন বলে অভিযোগ উঠে। পরে সাহেদের চিকিৎসা মাউন্ট এডোরা হাসপাতাল আয়ত্ত্বের বাইরে চলে গেলে গত ৬ ডিসেম্বর তাকে ঢাকার পিজি হাসপাতালে স্থানান্তর করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এরপর ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালসহ কয়েকটি হাসপাতালে তার চিকিৎসা দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।  এছাড়া মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ডা. আখতারুজ্জামানের সাথে সাহেদের ঘনিষ্ঠতা ছিল। সেটাও সাহেদের ভুল চিকিৎসা এবং মৃত্যুর কারণ বলে অনেক কর্মকর্তা অভিযোগ তুলেছেন।  সাহেদকে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. খালেদ মাহমুদ বলেন, গত ডিসেম্বরে সে রোগীর পরামর্শক্রমে আমি সিস্টের অপারেশন করিয়েছিলাম। শুনেছি এর পরে উনার শরীরে অন্যান্য সমস্যা দেখা দেয়। তবে আমার অপারেশনের সাথে উনার পরবর্তী সমস্যাগুলোর (রোগের) কোন সংশ্লিষ্টতা নেই।  চিকিৎসা দেওয়া মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ কামালের কাছে জানতে চাইলে তিনি মিটিংয়ে আছে বলে জানিয়ে পরে কথা বলব বলে ফোন কেটে দেন।  এরআগে গত বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দপ্তরের কর্মকর্তা নূরজাহান ফাতেমা সিলেটের নয়াসড়কস্থ মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে সিস্টের অপারেশন ও এ্যানেসথেসিয়া করার পরপরই তিনি মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতালটির ডাক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে। এছাড়া এই হাসপাতালের বিরুদ্ধে অসংখ্য ভুল চিকিৎসার অভিযোগ রয়েছে।  সহকর্মীর মৃত্যুতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়ে শাবি অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অশোক বর্মন অসীম বলেন, মাউন্ট এডোড়ার হাসপাতালের চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার জন্য আমাদের সহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। মাউন্ট এডারা কর্তৃপক্ষেও কারণে আমাদের সহকর্মীর যে সমস্যা হয়েছে তাতে তার চিকিৎসা সহায়তা চেয়েছি, তাদের কাছে কোন ক্ষতিপূরণ চাইনি। তবে তারা আশ্বাস দিয়ে কালক্ষেপণ করেছে, কোন সদুত্তর দেয়নি, তারা আমাদের সাথে সম্পূর্ণ ব্যবসায়িক আচরণ করেছে। তাতেই আমাদের সহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।  আমরা মাউন্ট এডোরা কর্তৃপক্ষের বিচার এবং এই মৃত্যুর কারণ উদঘাটন করে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমুলক শান্তির দাবি জানাচ্ছি, ভবিষ্যতে যাতে এরকম ক্ষতির মধ্যে কেউ পতিত না হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন